Translation Courtesy: Jiten Nandi

This appeal is a reflection of our collective frustration and instead of being sent to the Govt, it will be presented before people of India.

It is already endorsed by eminent Indians like Prashant Bhushan, Aruna Roy, Binayak Sen, Vandana Shiva, Lalita Ramdas, Partha Chatterjee, Praful Bidwai, Achin Vanaik, Gnani Sankaran, John Dayal, Meher Engineer, Sandeep Pandey etc.

In New Delhi, this appeal would be released on May 20th at 6 pm at the India gate by the prominent environmentalist Vandana Shiva.

In Mumbai, this appeal would be released on May 20th at 6.30 pm at Chaityabhoomi (Dadar) by the famous film-mker and human-rights activist Binayak Sen.

We urge you to sign the appeal and organise its public reading at your place.

ভারতের সহনাগরিকদের প্রতি,

গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার চূড়াস্বরূপ আমাদের জাতীয় সংসদের ষাটতম বর্ষ যখন উদ্‌যাপিত হচ্ছে, ঠিক তখনই আমাদের বহু কষ্টার্জিত গণতন্ত্র নির্মম পীড়ন ও হিংস্র দমনের সম্মুখীন।  ‘ধ্বংসাত্মক উন্নয়ন’-এর কর্মকাণ্ডের গতি দ্রুততর করার প্রক্রিয়ায় এবং পরমাণু শক্তি উৎপাদন করার মাধ্যমে ও তার সঙ্গে সঙ্গে এই ‘উন্নয়ন’-বিরোধী সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ জনপ্রতিবাদকে নির্মমভাবে দমন করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষ, মহিলা ও শিশুদের কথা উপেক্ষিত হচ্ছে। মরিয়া হয়ে সাধারণ মানুষ তাদের ভোটার আইডি কার্ড ফেরত দিচ্ছেন। এই ভোটার কার্ড শেষ বিচারে ‘জনগণের ক্ষমতা’র প্রতীক, যে ক্ষমতা হল প্রকৃত গণতন্ত্রের মর্মবস্তু। বিক্ষোভের কি এর চেয়ে মর্মস্পর্শী কোনো রূপ থাকতে পারে?

সাম্প্রতিক দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলনে যা দেখা গেছে; সামাজিক, লিঙ্গগত ও পরিবেশগত ন্যায়বিচারের জন্য বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে এবং জনগণের জীবন, মর্যাদা, সম্পদ ও জীবিকার অধিকার সুরক্ষিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্তের অন্যান্য সংগ্রামে যা দেখা গেছে, কুডানকুলামের জনআন্দোলনও নিজেদের ভবিষ্যৎকে সুরক্ষিত করতে চেয়ে সরকারের কঠিন দমনপীড়নের মুখোমুখি হয়েছে; বৃহত্তর সমাজের কাছ থেকে পেয়েছে একটানা ঔদাসীন্য। হতাশজনকভাবে এই প্রকৃত জনপ্রিয় আন্দোলনকে মূলস্রোত সংবাদমাধ্যম সংবাদে যথাযথভাবে স্থান দেয়নি।

এই সপ্তাহে ইদিনথাকারাই গ্রামের মানুষ তাদের ১৪-দিন ব্যাপী অনশন সম্পূর্ণ করবে। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে তামিলনাড়ু বা দিল্লি থেকে কোনো সরকারি প্রতিনিধি তাদের সঙ্গে কথা বলতে আসেনি। এলাকায় পুলিশি প্রহরা বাড়িয়ে তোলা হয়েছে; বিক্ষোভরত গ্রামবাসীদের রেশন কার্ড কেড়ে নেওয়ার উপায় সহ, যতরকম সম্ভাব্য উপায়ে মানুষকে ভয় দেখানো যায় তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এই মারাত্মক ও চরম অবস্থায় উপনীত হয়ে আপনাদের কাছে এই আবেদন করছি।

ভারতের শক্তি (এনার্জি)-র ভবিষ্যৎ নিয়ে তর্ক অনেকটাই অসমাধিত রয়ে গেছে। ভারতের জন্য প্রয়োজনীয় সবচেয়ে নিরাপদ ও টেকসই জনমুখী শক্তি ভবিষ্যৎকে সুনিশ্চিত করতে আমাদের আরও ব্যাপক ঐকমত্য গড়ে তুলতে হবে।

কুডানকুলামের চুল্লি-প্রকল্প অনেকগুলি ক্ষেত্রে প্রচলিত নিয়মকানুনকে লঙ্ঘন করেছে। বিক্ষোভরত মানুষ সম্ভাব্য সমস্ত মঞ্চ ব্যবহার করে শান্তিপূর্ণ ও লাগাতারভাবে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নকে তোলার চেষ্টা করছে — যেগুলি একইসঙ্গে পরমাণু শক্তি সম্পর্কিত সাধারণ ও স্থানীয় প্রশ্ন। বহু স্বাধীন বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানী কুডানকুলাম চুল্লি চালু করার নানান বিপদ সম্পর্কে ইতিমধ্যেই গুরুত্ব সহকারে মত ব্যক্ত করেছেন।

এই চরম সংকটপূর্ণ অবস্থায়, বর্তমান সরকার যেভাবে ব্যাপক পরমাণু প্রসারের পথে ইতিমধ্যেই পা বাড়িয়ে দিয়েছে, এ পথে আরও অগ্রসর হওয়ার আগেই আমরা তা নিয়ে ব্যাপক মত বিনিময়ের প্রয়োজন অনুভব করছি।

আমরা আপনার কাছে সনির্বন্ধ অনুরোধ করছি, আপনি সরকারের কাছে অবিলম্বে দাবি করুন শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীদের ওপর সন্ত্রাস ও দমন বন্ধ করার জন্য।

আমাদের দেশের গণতন্ত্র ও আত্মিক বৈশিষ্ট্যকে রক্ষা করতে সোচ্চার হওয়ার জন্য আমাদের এখনই একজোট হওয়া একান্ত প্রয়োজন। কুডানকুলামের জনআন্দোলনকে চরম নিপীড়ন করে স্তব্ধ করে দেওয়ার মতো অসহনীয় দৃষ্টান্ত, ভবিষ্যতের সমস্ত ব্যক্তিগত ও সমষ্টিগত সংগ্রামের পক্ষে অমঙ্গলজনক হয়ে উঠবে।

শ্রদ্ধা সহ

স্বাক্ষরকারী নাগরিক সমাজ